Skip to content

শয়তানের দ্বারা ইসা আল মসীহর পরীক্ষা

সুরাহ আল-আনফাল (সুরাহ 8 – বুটি) আমাদের বলে শয়তান কিভাবে আমাদের প্রলোভিত করে I

আর যখন সুদৃশ্য করে দিল শয়তান তাদের দৃষ্টিতে তাদের কার্যকলাপকে এবং বলল যে, আজকের দিনে কোন মানুষই তোমাদের উপর বিজয়ী হতে পারবে না আর আমি হলাম তোমাদের সমর্থক, অতঃপর যখন সামনাসামনী হল উভয় বাহিনী তখন সে অতি দ্রুত পায়ে পেছনে দিকে পালিয়ে গেল এবং বলল, আমি তোমাদের সাথে না-আমি দেখছি, যা তোমরা দেখছ না; আমি ভয় করি আল্লাহকে। আর আল্লাহর আযাব অত্যন্ত কঠিন। 

সুরাহ আল-আনফাল 8:48

সুরাহ তা-হা (সুরাহ 20 – তাহা) বর্ণনা করে কিভাবে ইবলিস আদমের পাপকে নিয়ে এল I এটি বলে

 অতঃপর শয়তান তাকে কুমন্ত্রনা দিল, বললঃ হে আদম, আমি কি তোমাকে বলে দিব অনন্তকাল জীবিত থাকার বৃক্ষের কথা এবং অবিনশ্বর রাজত্বের কথা?

সুরাহ তাহা 20:120

ভাববাদী ঈসা আল মসীহর উপরে শয়তান একই কৌশল চেষ্টা করল I ভাববাদী যাহয়ার আবির্ভাবের ঠিক পরে ইঞ্জিল তার প্রলুব্ধকারী ফিসফিসানির বর্ণনা করে I আমরা দেখলাম কিভাবে ভাববাদী যাহয়া (পিবিইউএইচ) মসীহর আগমনের জন্য লোকেদের প্রস্তুত করতে এগিয়ে এলেন I ইঞ্জিল বর্ণনা করতে এগিয়ে যায় যে ভাববাদী ঈসা (পিবিইউএইচ) তখন ভাববাদী যাহয়ার (পিবিইউএইচ) দ্বারা বাপ্তিস্ম নিলেন I এটি ঘোষণা করল যে মসীহ হিসাবে ঈসার (পিবিইউএইচ) প্রকাশ্য সেবাকার্য শুরু হওয়ার ছিল I কিন্তু এটি শুরু হওয়ার পূর্বে ভাববাদী ঈসাকে (পিবিইউএইচ) প্রথমে পরীক্ষিত এবং প্রলোভিত হওয়ার ছিল আমাদের সকলের দুর্দান্ত শত্রুর দ্বারা – স্বয়ং শয়তানের দ্বারা (বা শতান বা ডেভিল বা ইবলিস) I

ইঞ্জিল তিনটি নির্দিষ্ট প্রলোভন বর্ণনার দ্বারা এই পরীক্ষাকে বর্ণনা করে যা শয়তান ঈসার (পিবিইউএইচ) কাছে নিয়ে এল I আসুন প্রতিটিকে আমরা পালাক্রমে দেখি I (আপনি লক্ষ্য করবেন যে শয়তান ঈসাকে ‘ঈশ্বরের পুত্র’ শিরোনামের সাথে সম্বোধন করেছে I এর অর্থ কি তা বোঝার জন্য এখানে দেখুন) I  

রুটির প্রলোভন

  রপর দিয়াবল য়েন যীশুকে পরীক্ষা করতে পারে তাই আত্মা যীশুকে প্রান্তরে নিয়ে গেলেন৷
2 একটানা চল্লিশ দিন ও চল্লিশ রাত সেখানে উপোস করে কাটানোর পর যীশু ক্ষুধিত হলেন৷
3 তখন সেই পরীক্ষক দিয়াবল তাঁর কাছে এসে বলল, ‘তুমি যদি ঈশ্বরের পুত্র হও, তবে এই পাথরগুলিকে রুটিতে পরিণত হতে বল৷’
4 কিন্তু যীশু এর উত্তরে বললেন: ‘শাস্ত্রে একথা লেখা আছে, ‘মানুষ কেবল রুটিতে বাঁচে না, কিন্তু ঈশ্বরের মুখের প্রত্যেকটি বাক্যেই বাঁচে৷’দ্বিতীয় বিবরণ

মথি 4:1-4

এখানে আমরা একটি সমান্তরাল ঘটনাকে দেখি যখন শয়তান স্বর্গে আদম এবং হবাকে প্রলোভিত করল I ওই প্রলোভনের মধ্যে নিষিদ্ধ ফল ছিল ‘… খাদ্যের জন্য উত্তম …’ আর এটি লোভনীয় হওয়ার এক কারণ ছিল I এই ক্ষেত্রে, ঈসা (পিবিইউএইচ) এত দীর্ঘ সময় ধরে রোজা করেছেন (আর এই রোজা বন্ধ হয় নি – কোনো ইফতার ছিল না – বা প্রতিদিন সন্ধ্যায় রোজা ভাঙত না) যে  রুটির কথা ভাবা বোধগম্যভাবে লোভনীয় ছিল I কিন্তু আদমের থেকে এই পরিনামটি ছিল ভিন্ন যেহেতু ঈসা আল মসীহ (পিবিইউএইচ) প্রলোভনকে প্রতিরোধ করলেন যখন আদম করল না I

কিন্তু কেন তাকে এই 40 দিন ধরে খেতে দেওয়া হল না? ইঞ্জিল আমাদের নির্দিষ্টভাবে বলে না, কিন্তু যাবুর ভবিষ্যদ্বাণী করেছিল যে আসন্ন দাস ইস্রায়েলের যিহূদি জাতির প্রতিনিধি হবে I ভাববাদী মশির (পিবিইউএচ) অধীনে, ইস্রায়েল জাতি কেবল স্বর্গের খাবার খেয়ে 40 বছর ধরে প্রান্তরে ঘুরে বেড়িয়েছিল (যাকে মান্না বলা হয়) I 40 দিনের রোজা এবং আত্মিক খাদ্য রূপে ঈশ্বরের বাক্যের উপরে ধ্যান দেওয়া প্রান্তরের মধ্যে একজন প্রতিশ্রুত দাস হিসাবে সেইসময়ের একটি প্রতীকাত্মক পুনরাবৃত্তি ছিল I   

ঈশ্বরকে পরীক্ষা করার প্রলোভন

দ্বিতীয় প্রলোভনটিও সমানভাবে কঠিন ছিল I ইঞ্জিল আমাদের বলে যে 

  5 দিয়াবল তখন পবিত্র নগরী জেরুশালেমের মন্দিরের চূড়ায় যীশুকে নিয়ে গেল;
6 আর যীশুকে বলল, ‘তুমি যদি ঈশ্বরের পুত্র হও তবে লাফ দিয়ে নীচে পড়, কারণ শাস্ত্রে তো একথা লেখা আছে: ‘তিনি তাঁর স্বর্গদূতদের তোমার উপর দৃষ্টি রাখতে আদেশ দেবেন আর তারা তোমাকে তুলে ধরবেন, য়েন পাথরের উপর পড়ে তোমার পায়ে আঘাত না লাগে৷'” গীতসংহিতা
7 যীশু তখন তাকে বললেন, ‘শাস্ত্রে একথাও লেখা আছে, ‘তোমার প্রভু ঈশ্বরকে তুমি পরীক্ষা করবে না৷’ দ্বিতীয় বিবরণ

মথি 4:5-7

এখনে শয়তান ঈসাকে (পিবিইউএইচ) প্রলুব্ধ করতে যাবুর থেকে উদ্ধৃতি দেয় I এটি অতএব স্পষ্ট যে আল্লাহর প্রতি তার বিরোধিতায়, সে পবিত্র রচনা সমূহকে পড়েছে যাতে করে সে তাদের বিরোধিতা করার উপায় তৈরী করতে পারে I সে বইগুলোকে ভালভাবে জানে এবং সেগুলো মোচড়ানোর ক্ষেত্রে একজন বিশেষজ্ঞ I    আমি যাবুরের সম্পূর্ণ উত্তরণটি পুনরায় বর্ণনা করছি যেখান থেকে শয়তান কেবল একটি ছোট অংশ উদ্ধৃতি করেছিল (আমি উদ্ধৃতিটির নিচে রেখাঙ্কিত করছি) I

  10 তোমার কোন অমঙ্গল হবে না| তোমার বাড়ীতে কোন অসুখ থাকবে না|
11 ঈশ্বর তাঁর দূতদের আজ্ঞা দেবেন এবং তুমি যেখানেই যাবে তারা তোমায় রক্ষা করবে|
12 তোমার পা যাতে পাথরে হোঁচট না খায়, সেই জন্য ওদের হাত তোমায় ধরে থাকবে|
13 বিষধর সাপ, এমন কি সিংহের মধ্যে দিয়েও তুমি হেঁটে য়েতে পারবে|
14 প্রভু বলেন, “যদি কোন ব্যক্তি আমাকে ভালবাসে এবং বিশ্বাস করে, আমি তাকে রক্ষা করবো| আমার অনুগামীরা যারা আমার নাম উপাসনা করে, তাদের আমি রক্ষা করবো|

গীতসংহিতা 91:10-14

আপনি দেখতে পারেন যে এখানে যাবুরের মধ্যে এটি এমন একজন ‘সে’, সম্পর্কে বলে যাকে শয়তান মসীহ রূপে বিশ্বাস করেছিল I কিন্তু এই উত্তরণটি ‘মসীহ’ বা ‘খ্রীষ্ট’ কে সরাসরি উল্লেখ করে না, তাহলে শয়তান কিভাবে এটি জানলো? 

আপনি লক্ষ্য করবেন সেই ‘সে’ ‘দুর্দান্ত সিংহ’ কে এবং সেই ‘সর্প’কে পদদলিত করবে (পদ 13 – আমি লালের মধ্যে রেখেছি) I ‘সিংহ’ ইস্রায়েলীয়দের যিহূদা উপজাতির সম্বন্ধে একটি উল্লেখ যবে থেকে ভাববাদী যাকোব (পিবিইউএইচ) তৌরাতের মধ্যে ভবিষ্যদ্বাণী করলেন যে:    

  8 “যিহূদা তোমার ভাইরা তোমার প্রশংসা করবে| তুমি তোমার শত্রুদের পরাজিত করবে| তোমার ভাইরা তোমার কাছে জানু পাতবে|
9 আমার বাছা, তুমি শিকারের ওপর দাঁড়িয়ে থাকা সিংহের মতো| সে বিশ্রাম করলে তাকে বিরক্ত করার সাহস কার আছে|
10 যিহূদার বংশ থেকেই রাজারা উঠবে| তার বংশ য়ে শাসন করবে এই চিহ্ন প্রকৃত রাজা না আসা পর্য্ন্ত রইবে| পরে বহু লোক বাধ্য হয়ে তার সেবা করবে|

আদিপুস্তক 49:8-10

একজন ভাববাদী রূপে যাকোব, বহু পূর্বে তৌরাতে বলেছিলেন (অর্থাৎ প্রায় 1700 খ্রীষ্টপূর্বাব্দে) যে যিহূদা এক সিংহের ন্যায় যার থেকে একজন ‘সে’ আসবে যে ‘সে’ শাসন করবে I যাবুর তার ভাববাণী চালিয়ে গেল I ‘সে’ ‘সিংহ’ কে পদদলিত করবে ঘোষণার দ্বারা যাবুর বলল এই ‘সে’ যিহূদার শাসক হবে I 

যাবুরের উত্তরণটি যেখান থেকে শয়তানও উদ্ধৃতি করেছিল বলল যে ‘সে’ ‘সর্পকে পদদলিত করবে’ I এটি আদমের চিহ্নর মধ্যে আল্লাহর দ্বারা প্রথম প্রতিশ্রুতির প্রতি সরাসরি উল্লেখ যে ‘স্ত্রীলোকটির বংশধর’ সর্পকে চূর্ণ করবে I এল্খানে এটিকে চিত্রের দ্বারা এই প্রথম প্রতিশ্রুতির মধ্যে চরিত্রগুলো এবং কার্যকলাপ সমূহকে পুনরায় ব্যাখ্যা করা হয়েছে:   

অতএব সদাপ্রভু ঈশ্বর সর্পকে বললেন…

  15 তোমার এবং নারীর মধ্যে আমি শত্রুতা আনব এবং তার সন্তানসন্ততি এবং তোমার সন্তান সন্ততির মধ্যে এই শত্রুতা বয়ে চলবে| তুমি কামড় দেবে তার সন্তানের পাযে কিন্তু সে তোমার মাথা চূর্ণ করবে|”

আদিপুস্তক 3:15
http://al-injil.net/wp-content/uploads/2012/11/the-offspring-diagram.jpg

এই প্রতিশ্রুতিকে প্রথমে আদমের চিহ্নর মধ্যে দেওয়া হয়েছিল, কিন্তু তখন বিবরণ সমূহ স্পষ্ট ছিল না I কিন্তু এখন আমরা জানি যে ‘স্ত্রী লোকটি’কে মরিয়ম হিসাবে দেখা যায় কারণ তিনিই কেবল একমাত্র ব্যক্তি যার একজন পুরুষ ছাড়া একজন বংশধর ছিল – তিনি কুমারী ছিলেন I আর সেই কারণে তার বংশধর, সেই ‘সে’ যার সম্বন্ধে প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়েছিল ঈসা আল মসীহ (পিবিইউএইচ) হবেন I আর আপনি এই চিত্রে দেখতে পারেন, প্রাচীন প্রতিশ্রুতি বলল যে ঈসা আল মসীহ (সেই ‘সে’) সর্পকে চূর্ণ করবে I শয়তানের উদ্ধৃত যাবুরের ভাববাণীটি যখন এটি বলেছিল তখন সে এটি এর পুনরুক্তি করেছিল I   

 “তুমি বড় সিংহ ও সর্পকে পদদলিত করবে I”

পদ 13

যাবুরের থেকে শয়তানের উদ্ধৃতি যা ঘুরে ফিরে তৌরাতের আদি দুই ভাববাণীসমূহকে বোঝায় যে একজন ‘সে’ আসছিলেন যিনি বাধ্যতার  আজ্ঞা দেবেন এবং শয়তানকে (সর্পকে) চূর্ণ করবেন I শয়তান জানত যে যাবুরের মধ্যে তার উদ্ধৃতি মসীহকে উল্লেখ করেছিল এমনকি যদিও তারা ‘মসীহ’ বলল না I শয়তানের প্রলোভন ছিল এটিকে ভুলভাবে পূর্ণ করতে চেষ্টা করা যাবুর এবং তৌরাতের এই দুই ভাববাণী সমূহ পূরণ হবে, কিন্তু ঈসার (পিবিইউএইচ) দ্বারা মন্দির থেকে ঝাঁপ মেরে নিজের প্রতি মনোযোগ আকর্ষণ করার দ্বারা নয়, বরং কোনো রকম বিচ্যুতি ছাড়া পরিকল্পনাকে অনুসরণ করে তৌরাত এবং যাবুরের মধ্যে আল্লাহর প্রকাশনের দ্বারা I

উপাসনা করার প্রলোভন

শয়তান তখন তার সমস্ত কিছু দিয়ে ঈসাকে প্রলোভন করল – জগতের সমস্ত রাজত্ব দ্বারা I ইঞ্জিল সেটিকে বলে:

  8 এরপর দিয়াবল আবার তাঁকে খুব উঁচু একটা পাহাড়ে নিয়ে গিয়ে জগতের সমস্ত রাজ্য ও তার সম্পদ দেখাল৷
9 পরে দিয়াবল যীশুকে বলল, ‘তুমি যদি আমার সামনে মাথা নত করে আমার উপাসনা কর, তবে এসবই আমি তোমায় দেব৷’
10 তখন যীশু তাকে বললেন, ‘দূর হও শয়তান! কারণ শাস্ত্রে লেখা আছে,‘তোমরা অবশ্যই প্রভু ঈশ্বরেরই উপাসনা করবে, একমাত্র তাঁরই সেবা করবে৷'” দ্বিতীয় বিবরণ 6:13
11 তখন দিয়াবল তাঁকে ছেড়েচলে গেল আর স্বর্গদূতরা এসে যীশুর সেবা করলেন৷

মথি 4:8:11

 ‘মসীহ’র অর্থ হ’ল অভিষিক্ত ব্যক্তির দ্বারা শাসন তাই মসীহর কাছে শাসন করার অধিকার ছিল I শয়তান ঈসাকে প্রলোভন করেছিল যা যথাযথভাবে তার ছিল, কিন্তু শয়তান তাকে তার শাসনের ভুল শর্টকার্ট পথে প্রলোভিত করেছিল, আর সে ঈসাকে (পিবিইউএইচ) এটি পেতে আরাধনা করতে প্রলোভিত করছিল – যেটি কর্তব্যকে এড়িয়ে চলা I ঈসা শয়্তানের প্রলোভনকে (আরেকবার) তৌরাত থেকে উদ্ধৃতির দ্বারা প্রতিরোধ করলেন I ঈসা আল মসীহ (পিবিইউএইচ) তৌরাতকে অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ণ বই হিসাবে দেখেছিলেন এবং স্পষ্টতই এটিকে ভলোভাবে জানতেন এবং এর উপরে ভরসা করেছিলেন I    

ঈসা – যিনি আমাদের বোঝেন

ঈসার (পিবিইউএইচ) প্রলোভনের সময় আমাদের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ I ইনজিল ঈসার সম্বন্ধে বলে:

 কারণ তিনি যখন প্রলুব্ধ হয়েছিলেন তখন তিনি নিজেই ভোগ করেছিলেন, তাই যাঁরা প্রলুব্ধ হন তাদের তিনি সহায়তা করতে সক্ষম হন।

ই ব্রীয় 2:18

এবং

15 আমাদের মহাযাজক যীশু আমাদের দুর্বলতার কথা জানেন৷ যীশু এই পৃথিবীতে সবরকমভাবে প্রলোভিত হয়েছিলেন৷ আমরা য়েভাবে পরীক্ষিত হই যীশু সেইভাবেই পরীক্ষিত হয়েছিলেন, কিন্তু তিনি কখনও পাপ করেন নি৷
16 সেইজন্যে বিশ্বাসে ভর করে করুণা সিংহাসনের সামনে এসো, যাতে আমাদের প্রযোজনে আমরা দয়া ও অনুগ্রহ পেতে পারি৷

 ইব্রীয় 4:15-16

স্মরণ রাখুন হারোণ (পিবিইউএইচ) মহা যাজক বলি উৎসর্গ নিয়ে এসেছিলেন ইস্রায়েলীয়রা যাতে ক্ষমা পেতে পারে I এখন ঈসাকে (পিবিইউএইচ) সমানভাব মহা যাজক রূপে গন্য করা হয় যিনি আমাদের সহানুভূতি জানাতে পারে এবং বুঝতে পারে – এমনকি আমাদের প্রলোভন সমূহের মধ্যেও সাহায্য করতে পারে, স্পষ্টতই তিনি নিজে প্রলোভিত হয়েছিলেন – যদিও পাপ ছাড়াই I এবং তাই আল্লাহর সামনে আমাদের মহা যাজক রূপে ঈসাকে নিয়ে আমাদের আত্মবিশ্বাস থাকতে পারে কারণ তিনি অত্যন্ত কঠিন প্রলোভন সমূহের মধ্য দিয়ে গমনা গমন করেছিলেন কিন্তু তিনি কখনও আত্ম সমর্পণ করেন নি এবং পাপ করেন নি I তিনি এমন একজন যিনি আমাদের বোঝেন এবং আমাদের নিজস্ব প্রলোভন সমূহ এবং পাপগুলোতে সহায়তা করতে পারেন I প্রশ্ন হ’ল: আমরা কি তাকে করতে দেব?    

Leave a Reply

Your email address will not be published.